ফাজলামী, ওরফে একটি স্বল্প দৈর্ঘ্য প্রেমের কাহিনী।

বহুকাল আগের কথা, আতেলনগর রাজ্যের রাজকুমারীর সাথে লুতুপুতু প্রেমের সম্পর্কে জরিয়ে পরে রোড সাইড রোমিও মানিকচান। তার লাল শার্ট আর হলুদ জুতো পরে সে কিভাবে রাজকন্যাকে পকাত করে পকেটে পুরে ফেলেছিলো আর সব হিরুকে ল্যাং মেরে তা আজো ফাজলামী ডট কমের পাঠক দের কাছে রহস্য।

দিন যায়, রাজকন্যা পালটি খায়, তার বিয়ে ঠিক হয় আজাইরাফোনের মালিকের ছেলে চিংপং এর সাথে। অতঃপর মানিকচান গোপনে লোকচক্ষুর অন্তরালে দেখা করে রাজকন্যার সাথে……

Funny-bangladeshi_film_posters

Funny-bangladeshi_film_posters

মানিকচানঃ না না না ! এ তুমি পারো না !

রাজকন্যা- কি পারি না ! সবি তো পারি ! এমনকি পানি গরম করতেও পারি !

মানিকচান- তা কই নাই ! এইজে আমাকে রেখে তুমি ঐ চ্যাপ্যাং কে বিয়ে করবা !

রাজকন্যা – কি আর করা, আব্বাজান বিয়ে ঠিক করছে, আর ছেলেটার নাক টাও এত কিউটি কিউটি, আমি আর না করতে পারলাম না !

(ব্যাকগ্রাউন্ডে হৃদয়বিদারক ধরাস ধরাস শব্দ)

মানিকচান- না না না ! এ কিভাবে সম্ভব? কি ছিলো না আমার, বুক ভর্তি জাংলা লোম, মন ভর্তি ভালোবাসা,হলুদ দাত ভর্তি মুখ! আর তুমি সুধু ঐ টাকা লোভে ঐ টাকলা টাকে বিয়ে করবা ?

রাজকন্যা- শাটাপ ! কাকে টাকলা বলছো তুমি ? জানো ও ৬ ৬ বার ফাইনালে ফেল করা অমুত্তমুক ভার্সিটির স্টূডেণ্ট ! ও করবে টাকলামী ?

মানিকচান- আবে ঐ কথা কই নাই, ঐ ব্যাটার মাথায় যে চুল নাই সে কথা বলছি! আর ব্যাটার মুখে যে তামিল হিরোর মত ইয়া বড় বড় গোফ, দেখলে জল্লাদ লাগে, তার কি হবে !

রাজকন্যা – কি ! তুমি আমার চিংপিং সোনা কে জল্লাদ বললা ? ছোটলোক, নীচ, ইতর, অসভ্য, আত্বকেন্দ্রিক, তোমার মত বাজে ছেলে আমি কোনদিন দেখি নাই !

মানিকচান- দেখো নাই, তাহলে এতদিন আমার লগে আছিলি ক্যান ডাইনী !

রাজকন্যা – শর্টকোড নাম্বার ৪২১।

মানিকচান- এটা কি জিনিষ ???

রাজকন্যা – এটাও জানো না ? এটা একটা লম্বা লাইনের শর্টকোড আমরা সবাই ব্যাবহার করি। মানে হইলো “ আমি দেখেই তোমার সাথে আছি বা ছিলাম, আর কেউ হলে থাকতো না” । পিপ পিপ পিপ………

 

( আগামী পর্বে দেখবেন……)

শিমুল শাহরিয়ারের কিবোর্ড এন্ড তারছিরা মাথা ক্রিয়েশন